প্রফেশনাল আর্লি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট সাবিহা জিতু মাতৃত্ব ফেসবুক গ্রুপে চমৎকার একটি প্রসংগের অবতারণা করেছেন। তিনি গ্রুপের সদস্যদের (মূলত নারী সদস্যদের গ্রুপ এটি) কাছে প্রশ্ন রেখেছেন:

প্রশ্নঃ “আপনাদের জানামতে গর্ভাবস্থায় কি কি ধরনের বিধিনিষেধ, রীতিরেওয়াজ বা কুসংষ্কার (যেগুলোর বৈজ্ঞানিক কোন ভিত্তি প্রতিষ্ঠিত নয়) সম্পর্কে আপনারা অবগত আছেন?”
উল্লেখ্যঃ কার কাছ থেকে জেনেছেন বা সেটি আপনারা মানছেন কি না সেটি লেখার প্রয়োজন নাই। কেবলমাত্র পয়েন্ট আকারে কি কি বিধিনিষেধ বা কুসংষ্কার সম্পর্কে অবগত আছে সেটি লিখবেন। সাহায্য করার জন্য অগ্রীম ধন্যবাদ।

এই প্রশ্নের উত্তরে গ্রুপের সদস্যরা দারুণ সব ইনপুট দিয়েছেন, সেটার একটা লিস্ট নিচে তুলে দিচ্ছি। আশা করছি এই তালিকা ক্রমাগত হালনাগাদ করা হবে এবং ভবিষ্যতের মা’দের কাজে আসবে।

  • অনেক মিষ্টি খেতে হয়, তাতে বাচ্চা ব্রিলিয়ান্ট হয়!!
  • গাজর, আনারস, পেপে খাওয়া নিষেধ… যদিও বিজ্ঞান কী বলে জানা নেই। এই নিষেধের আংশিক যৌক্তিকতা আছে।
  • ডাবের পানি না খাওয়া, খেলে বাচ্চার চোখ ঘোলা হয়ে যাবে!
  • মেহেদী পড়া যাবেনা এই সময়। পড়লে বাচ্চার গায়ে দাগ হবে!
  • চন্দ্র ও সূর্য গ্রহণের সময় কিছু করা যাবে না, চন্দ্রগ্রহন দেখতে হয়না।
  • সূর্য গ্রহন চন্দ্র গ্রহণ এ কিছু না খাওয়া, না কাটা, গোসল না করে হাটাহাটি করা!
  • চন্দ্রগ্রহন সূর্য গ্রহনের সময় ঘুমালে বাচ্চা কানে শুনে না,কালা হয়
  • গ্রহনের সময় কাটাকাটি করলে বাচ্চার গায়ে কাটা কাটা চিন্হ থাকে
  • বাচ্চার কাথা চিপে মুচড়ায়া ধুইলে, বাচ্চা বেশি মোচড়ায়।
  • হাঁস মুরগি জবাই করা যায়না, মোট কথা কোনো কিছু মারা যায়না।
  • রাতে বের হতে হয়না। [সম্পাদকের নোট: শিশু ও নারীদের সন্ধ্যার পর বের হওয়া নিয়ে ইসলাম ধর্মে অনুৎসাহিত করা হয়েছে]
  • ভরদুপুরে বের হতে হয় না, ছাদে যাওয়া যায় না
  • প্রেগনেন্সিতে মায়ের কিছু খেতে ইচ্ছে করলে,না খেলে বাচ্চার লোল পড়ে।
  • ডান সাইডে হলে মেয়ে বাচ্চা,বাম সাইডে হলে ছেলে
  • পায়জামার ফিতা নাভির নিচে থাকলে বাচ্চা পেটের উপরে থাকে। আর ফিতা নাভির উপরে থাকলে বাচ্চা নিচের দিকে থাকে।
  • গর্ভকালীন সময় মা দেখতে সুন্দর হলে মেয়ে
  • পায়জামার ফিতা উপরে টাইট করে পড়তে হয়,তাহলে বাচ্চা নিচে থাকে, নরমাল ডেলিভারি হয়।
  • বাইম মাছ, চেওয়া মাছ খেলে বাচ্চা বেশি মোচড়ায়
  • বাইরে বের হলে দেয়াশলাই, পেরেক সাথে রাখতে হয়
  • বাইরে থেকে খাবার আনলে সাথে রসুন দিতে হয় নাহলে জ্বিনে ধরে
  • রান্না করার সময় লুসনির উপর গরম ঢাকনা রাখতে হয় না, নাহলে বাচ্চার গায়ে ছোপ ছোপ দাগ পড়ে
  • প্রেগন্যান্সিতে সকালে ঘুম থেকে উঠেই কোন কালো মানুষ দেখা যাবে না, ফর্সা কাউকে দেখতে হবে, তাহলে বাচ্চা ফর্সা হবে
  • চালকুমড়া খাওয়া যাবে না, তাহলে বেশি বেশি গায়ে পশম হবে
  • ডাবের পানি খেলে বাচ্চার চোখের মনি ঘোলা হবে
  • Heartbeat বেশি হলে মেয়ে
  • প্লাসেন্টা পস্টেরিয়র হলে ছেলে
  • এছাড়া মা দেখতে সুন্দর হলে মেয়ে। বেশি বমি করলে মেয়ে। নাভি উচু হলে ছেলে ।
  • প্রেগ্ন্যাসিতে হাসের মাংস খেলে বাচ্চার গলার ভয়েজ হাসের মতো হয়

খেয়াল করুন উপরের তালিকাটি প্রচলিত বিধিনিষেধ বা কুসংষ্কারের তালিকা। এগুলোকে ডাক্তারি পরামর্শ ভাবার কোন কারণ নেই।

আর্টিকেল নিয়ে আপনার প্রশ্ন, অভিজ্ঞতা বা ফীডব্যাক শেয়ার করতে মাতৃত্ব ডট কম পরিচালিত সামাজিক চ্যানেলে যোগ দিন

লেখাটি কি আপনার উপকারে এসেছে?
হ্যানা